https://www.coxsbazarbanglanews.com

https://www.coxsbazarbanglanews.com

যুক্তরাষ্ট্রের উটকিয়াগভিক শহরে আগামী ২ মাস সূর্য দেখা যাবে না

Recent Tube

যুক্তরাষ্ট্রের উটকিয়াগভিক শহরে আগামী ২ মাস সূর্য দেখা যাবে না



সিবিবিএন ডেক্স:
আগামী ৬০ দিনের জন্য গত বৃহস্পতিবার সূর্যকে বিদায় জানালো যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কা অঙ্গরাজ্যের উটকিয়াগভিক শহরের বাসিন্দারা। সেখানে প্রায় ৬০ দিনের বেশি সময় ধরে আর দেখা যাবে না সূর্য।
সিএনএনর একটি প্রতিবেদন অনুসারে, যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কা অঙ্গরাজ্যের এই শহরটি দক্ষিণ মেরুতে অবস্থিত হওয়ায় প্রায় ৬৫ দিন অন্ধকারের মধ্য থাকবেন সেখানকার বাসিন্দারা। এই অন্ধকারের সময়টি বলা হয় পোলার নাইট। মাত্র চার হাজার বাসিন্দার এই শহরের মানুষজন পরবর্তী ৬৫ দিনের জন্য অন্ধকারে থাকার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এই দীর্ঘ অন্ধকারাচ্ছন্ন অবস্থাকে ‘পোলার নাইট’ বলা হয়।

মেরু অঞ্চলের কাছাকাছি অবস্থান হওয়ায় দীর্ঘতম রাত্রির আঁধারের তলিয়ে যায় হিমশীতল শহর আলাস্কা। গত বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় দুপুর ১:৩০ নাগাদ শেষবারের জন্য সূর্যকে দেখা গেল আলাস্কার ছোট্ট প্রান্তবর্তী শহর উটকিয়াগভিকে।
উটকিয়াগভিক শহরটির পূর্ববর্তী নাম ছিল ‘ব্যারো’। এর অবস্থান আর্কটিক সার্কেল থেকে ৩২০ মাইল দূরে। মেরু অঞ্চলে যেমন ৬ মাস স্থায়ী হয় রাত, এখানের অবস্থা অবশ্য তেমন নয়। কিন্তু ৬৬ দিনের দীর্ঘ অন্ধকারযাপন নেহাত কম কি? দিনের ২৪ ঘণ্টাই সূর্য বেশ কয়েক ডিগ্রী নিচে থাকে দীগন্ত রেখার। কাজেই দিনের বেলাতে উষ্ণতা বাড়লেও তা নিতান্তই সামান্য। সমগ্র শহরই যেন ডুবে যায় হিমশীতল রেফ্রিজারেটরের মধ্যে। দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রাও ছুঁতে পারে না শূন্য ডিগ্রি সেলসিয়াসকে। যতদূর চোখ যায় শুধু সাদায় সাদা, বরফ আর বরফ।
আলাস্কার আবহাওয়া দপ্তরের মতে, আবার তার দেখা মিলবে সেই জানুয়ারি মাসে। ২৩ জানুয়ারি বেলা ১টা ১৬ মিনিটে হবে সূর্যোদয়। তবে এই দীর্ঘতম ‘মেরু রাত্রি’ চললে একেবারে অন্ধকার হয়ে থাকে না আলাস্কার আকাশ। সেখানে রাতভরই চলতে থাকে নানান রঙের আলোর খেলা। মেরুজ্যোতির আভা চক চক করে জমাট বেঁধে যাওয়া নদী, লেকের ওপর পড়ে।
তবে এই দীর্ঘতম রাত পেরিয়ে গেলে, শীতকাল শেষ হলে গ্রীষ্মে মে থেকে আগস্ট পর্যন্ত আলাস্কার অধিবাসীরা আবার রাতের নাম-গন্ধ পাবেন না মাস দুয়েক। যদিও সেই তাপমাত্রাই তাঁদের কাছে চরমতম স্বস্তিদায়ক। ততদিন অবধি অপেক্ষা করে যাওয়া শীতসহ্য করে। মাঝের সময়টুকুর জন্য এখন প্রস্তুতি নিচ্ছে আলাস্কাবাসীরা। অন্ধকার যুগ কাটানোর জন্য সংগ্রহ করে রাখছেন ভিটামিন-ডি সাপ্লিমেন্ট। সূর্যের অনুপস্থিতিতে তা যে অত্যাবশ্যকীয়। সেই সঙ্গে পশমের ভারী পোশাক। নাহলে প্রকৃতির সঙ্গে লড়াই করা যাবে কেমনভাবে?
এ নিয়ে মার্কিন সংবাদমাধ্যম আবহাওয়াবিদ অ্যালিসন চিনচর বলেন, পোলার নাইট উটকিয়াগভিকের জন্য একটি সাধারণ ঘটনা। আর্কটিক সার্কেলের অন্যান্য শহরেও এমনটি ঘটে। সূত্র : সিএনএন

Post a Comment

0 Comments